3000+ Bar Phone FirmwareGet Update for Click

মাইক্রোসফট শর্টকাট কী | MS-Word Shortcut Key

মাইক্রোসফট শর্টকাট Ms-word shortcut

 

সকল অপারেটিং সিস্টেম ও প্রায় সব প্রোগ্রামেই দ্রুত কাজ করার জন্য মাইক্রোসফট বা শর্টকাট কী | MS-Word Shortcut Key দেয়া থাকে । সচরাচর ব্যবহারকারীরা মাত্র গুটিকয়েক কিবোর্ড শর্টকাট মনে রাখেন । কিন্তু কাজের সুবিধার্থে দরকারী কিছু কিবোর্ড শর্টকাট মুখস্থ করে রাখলে জীবন অনেকটাই সহজ হয়ে যায়। তাই এই পোস্টে আপনাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি উইন্ডোজ কিবোর্ড শর্টকাট ও সেগুলোর কাজ জানাচ্ছি, যা আপনার কম্পিউটারে কাজের গতি অনেক গুণ বাড়িয়ে দেবে।

 

মাইক্রোসফট শর্টকাট Ms-word shortcut Key:

1. Ctrl + A = Select all (সিলেক্ট অল)
2. Ctrl + B = Bold (টেক্সট বোল্ড)
3. Ctrl + C = Copy (কিছু কপি করা।)
4. Ctrl + D = Open Font Change Box (ফন্ট পরিবর্তন বক্স প্রদর্শন)
5. Ctrl + E = Center (এলাইনমেন্ট সেন্টার করা)
6. Ctrl + F = Open Search Box for Finding (কোন শব্দ প্রতিস্থাপন বা খোঁজ করার বক্স প্রদর্শন)
7. Ctrl + G = Go to (গো টু কমান্ড)
8. Ctrl + V = Paste (স্থাপন বা রিপ্লেস কমান্ড)
9. Ctrl + I = Text Make Italic (টেক্সট ইটালিক)
10. Ctrl + J = Justify (টেক্সট জাস্টিফাইড এলাইনমেন্ট করা)
11. Ctrl + K = Make Hyperlink (হাইপারলিংক তৈরী করা)
12. Ctrl + L = Left Align (টেক্সট লেফট এলাইনমেন্ট করা)
13.Ctrl + R = Right Align (টেক্সটকে রাইট এলাইনমেন্ট করা)
14. Ctrl + N = Open New File (নতুন কোন ডকুমেন্ট খোলার জন্য)
15. Ctrl + O = File Open (পূর্বে তৈরী করা কোন ফাইল খোলার জন্য)
16. Ctrl + P = Open Print Window (ডকুমেন্ট প্রিন্ট)
17. Ctrl + Q = Specs (প্যারাগ্রাফের মাঝে স্পেসিং করার জন্য)
18. Ctrl + M = Invent (ইনভেন্ট দেয়ার জন্য)
19. Ctrl + S = Save File (ফাইল সেভ)
20. Ctrl + T = Change Indent (ইনডেন্ট পরিবর্তন করার জন্য)
21. Ctrl + U = Underline (টেক্সট আন্ডারলাইন)
22. Ctrl + V = Paste (টেক্সট পেষ্ট করার জন্য)
23. Ctrl + W = Close File (ফাইল বন্ধ করার জন্য)
24. Ctrl + X = Cut (ডকুমেন্ট থেকে কিছু কাট করার জন্য)
25. Ctrl + Y = Redo (রিপিট করার জন্য)
26. Ctrl + Z = Undo (আন্ডু বা পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা)

 

 

কী-বোর্ডের উপরের দিকের ফাংশন Key F1 থেকে F12 বাটনগুলোর গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহারঃ

F1: সাহায্যকারী key হিসেবে ব্যবহার হয় । যখন F1 key চাপা হয় তখন প্রত্যেক প্রোগ্রামেরই Help page চলে আসে।

F2: ধারণত কোনো ফাইল বা ফোল্ডার Rename করার জন্য ব্যবহার হয়। Alt+Ctrl+F2 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের নতুন ডকুমেন্ট খোলা যায় । Ctrl+F2 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের প্রিন্ট প্রিভিউ দেখা হয় ।

F3: কি চাপলে মাইক্রোসফট উইন্ডোজসহ অনেক প্রোগ্রামের সার্চ অপশন চালু হয়।Shift+F3 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের লেখা বড় হাতের থেকে ছোট হাতের বা প্রত্যেক শব্দের প্রথম অক্ষর বড় হাতের বর্ণ দিয়ে শুরু ইত্যাদি কাজ করা হয় ।

F4: মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের last action performed Repeat করা যায়। Alt+F4 চাপ দিলে সক্রিয় সব প্রোগ্রাম বন্ধ করা হয়ে যাবে ।

F5: মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, ইন্টারনেট ব্রাউজার ইত্যাদি Refresh করা হয় । MS Power point -এ  স্লাইড শো আরম্ভ করা হয়। এবং MS ওয়ার্ডের find, replace, go to উইন্ডো খোলা হয়।

F6: মাউসের কার্সরকে ইন্টারনেট ব্রাউজারের অ্যাড্রেসবারে নিয়ে যাওয়া হয়। Ctrl+Shift+F6 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ডকুমেন্টে খোলা অন্য ডকুমেন্টটি সক্রিয় করা হয়।

F7: মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে লেখা বানান ও গ্রামার ঠিক করা হয় এবং মজিলা ফায়ারফক্সের Create browsing চালু করা হয় । Shift+F7 ব্যবহার করে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে কোন নির্বাচিত শব্দের প্রতিশব্দ, বিপরীত শব্দ, শব্দের ধরন ইত্যাদি জানার জন্য ডিকশনারি চালু করতে ব্যবহার করা হয়।

F8: Operating System Open করার সময় কাজে লাগে। সাধারণত উইন্ডোজ Safe Mode-এ চালু করার জন্য এই কি টি চাপতে হয়।

F9: কি চেপে Quark 5.0 এর মেজারমেন্ট Toolbar ওপেন করা হয়।

F10: কি চেপে ইন্টারনেট ব্রাউজার বা কোন খোলা উইন্ডোর মেনুবার নির্বাচন করা হয় । Shift+F10 চেপে কোন নির্বাচিত লেখা বা লিংক বা ছবির উপর মাউস রেখে ডান বাটনে ক্লিক করার কাজ করা হয়।

F11: ইন্টারনেট ব্রাউজারের ফুল-স্ক্রিন মোড অন-অফ করা হয় ।

F12: মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের Save as উইন্ডো ওপেন করা হয় ।  Shift+F12 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ডকুমেন্ট সেভ করা হয় ।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Clicky